সজনে পাতার উপকারিতা

মরিঙ্গা বা সজনে পাতার প্রকাশ সম্পর্কে জানেন না এমন কোন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না।  এ গাছের প্রতিটি অঙ্গী পুষ্টি উপাদানের টাইট উপর থাকে।  নিম্নের সজনে পাতার বিভিন্ন উপকার সম্পর্কে আলোচনা করা হলো:

আমাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য যে সকল পোস্ট উপাদানের প্রয়োজন তার সত্যকে রয়েছে সজনে পাতার মধ্যে। সজনে পাতাকে বলা হয় পুষ্টির ভান্ডার। সজনে পাতার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উৎপাদনের সাথে ভিটামিন সি, এ, জিংক, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন ,ম্যাগনেসিয়াম সহ আরো অনেক উপাদান বিদ্যমান থাকে। এ পাতার মধ্যে বিভিন্ন ধরনেরপুষ্টি উপাদান থাকার কারণে আমাদের শরীরের যে ঘাটতি এ ঘাটতি পূরণ হয়ে যায়। এতে করে আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

আমরা সহজেই যেকোনো রোগ থেকে প্রতিরোধ করতে পারি এবং মুক্তি পেতে পারি। আমাদের শরীরের প্রতি ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমাদের খাদ্য তালিকা একান্ত প্রয়োজন। সন্ধি রাতে কি পরিমান পুষ্টিপ্রধান রয়েছে তা আমরা সকলেই অবগত। 

এ পাতার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ও  জিংক রয়েছে। আয়রন ও জিংকক আমাদের দেহের রক্তস্বল্পতা দূর করতে সাহায্য করে এবং আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।সজনে পাতা কাভার হিসেবে গ্রহণ করলে আমাদের দেহের যে আয়রন প্রয়োজন তা মিটিয়ে শারীরিক দুর্বলতা রক্তশূন্যতা পূরণ হয়ে পূরণ হয়ে যাবে এবং আমাদের দেহে ক্ষয় রোধ প্রতিরোধ হবে।

পাতার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অ্যামাইনো এসিড রয়েছে।  অ্যামাইনো এসিড আমাদের শরীরের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এমন এসিড আমাদের শরীরে মেটাবলিজম কমাতে সাহায্য করে। আমরা যদি নিয়মিত সজনে পাতা খাই তাহলে এমন এসিড আমাদের শরীরের বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

সজনে পাতা কি বলা হয়েছে কি পুষ্টির ভান্ডার। এ পাতার মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণে ওষুধগুলো রয়েছে।  এটি খাওয়ার মাধ্যমে আমাদের লিভারের বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এটি আমাদের দেহে এনটিঅক্সিডেন্ট বৃদ্ধি করে যা আমাদের গুলোকে সচল এবং  লিভারকে সতর রাখতে সহযোগিতা করে।লিভার থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করতেও এর কোন জুড়ি নেই। এর  পরিফেনল উপাদান লিভার থেকে বিষাক্ত ও ক্ষতিকর পদার্থ বের করতে সহযোগিতা করে।

আমাদের লিভার কে সুস্থ ও সরল রাখতে এবং সজল রাখতে অবশ্যই বেশি করে সজনে পাতা খাওয়া উচিত। এই পাতা আমাদের লিভারের কোষগুলোকে সচল রাখে এবং রোগ প্রতিরক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহযোগিতা করে এবং আমাদের খাবার হজমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সজনে পাতা ওষুধের গুণের কারণে আমাদের দেহের যে অতিরিক্ত ওজন ও অতিরিক্ত চর্বি জমে সেগুলো কমাতে সহযোগিতা করে।  যারা অতিরিক্ত ওজন ও ছবি নিয়ে চিন্তিত আছেন তারা যদি তাদের খাবার তালিকায় স্বর্ণের পাতা রাখেন তাহলে এগুলো এটা প্রাকৃতিক ভাবেই তাদের ওজন ও অতিরিক্ত কমাতে সহযোগিতা করবে। অধিকাংশ বিশেষজ্ঞ অতিরিক্ত ওজন আহমেদ কমানোর জন্য সজনে পাতা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকে।  এটি যেত প্রাকৃতিক একটি খাবার এর কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই, আমাদের শরীরের উপকার করে কিন্তু কোন অপকার করে না।

আমাদের দেহে শর্করা নিয়ন্ত্রণের জন্য এই পাতা একটি উপকারী ওষুধ হিসেবে কাজ করে থাকে। সজনে পাতা আমাদের দেহে অতিরিক্ত শর্করা উৎপন্ন হতে দেয়না। এই শর্করা ডায়বেটিসের জন্য দায়ী।  তাই যারা ডায়াবেটিস রোগী আছেন তারা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য সজনে পাতা নিয়মিত খেতে পারেন।

এ পাতা যেহেতু অতিরিক্ত ছবি ও মেদ কমিটির সাহায্য করে, যা আমাদের হার্টের জন্য খুবই ক্ষতিকর। অতিরিক্ত মেয়াদ ও চর্বি কমানোর ফলে আমাদের হার্ট সুস্থ ও সরল থাকে এবং সঠিকভাবে সে তার কাজ করতে পারে। তাই হার্টের প্রাকৃতিক ওষুধালয় হিসেবে কাজ করে এই সজনে পাতা।

হার্ট ভালো রাখা এবং বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকার কারণে এই পাতা আমাদের উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।  উচ্চ রক্তচাপের জন্য খুবই ক্ষতিকর এর জন্য মানুষের স্ট্রোক হতে পারে। তা খাওয়ার মাধ্যমে এর বিভিন্ন প্রদান বৃদ্ধি করে এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সহযোগিতা করে।

এই পাতার মধ্যে যেহেতু বিভিন্ন প্রকার উপাদান বিদ্যমান ভিটামিন এ বিএসসি পটাশিয়াম ক্যালসিয়াম ম্যাগনেসিয়াম আয়রন এবং এমাইনো এসিড। ড এই অ্যামাইনো এসিড আমাদের শরীরে মেটাবলিজম বাড়াতে সাহায্য করে যার কারণে আমাদের শরীর দুর্বলতা থেকে রক্ষা পায় এবং আমাদের সরকার  কর্মক্ষম রাখে। শরীরকে কর্মকর্তার জন্য এই পাতার গুরুত্ব অপরিসীম।

বাচ্চা প্রসবের পর মায়েদের বুকের দুধ বৃদ্ধির জন্য এই পাতা কালো জিরার পাশাপাশি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।  যেসব মেয়েরা বাচ্চা দুধ খায় না তারা কালোজিরা পাশাপাশি সজনে পাতা প্রচুর পরিমাণে খেতে পারেন।  এতে করে তাদের বুকের দুধ বৃদ্ধি পাবে এবং মায়েদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে। এই ক্যালসিয়াম বিশেষ করে আমাদের শরীরের হাড় গঠনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।  নিয়মিত খেলে আমাদের হার মজবুত এবং দাঁত শক্তিশালী হয়। শুধু হার কি মজুদ করে না আমাদের দেহের মাসল গুলো কেউ সতেজে রাখতে ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই দাঁত এবং হাড় কি সুস্থ সবল রাখার জন্য আমাদেরকে এ পাতা নিয়মিত খাবারের একটি অংশ হিসেবে তালিকা করা প্রয়োজন।

চোখের জ্যোতি বা পাওয়ার বাড়ানোর জন্য ভিটামিন এ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  সজনে পাতার মধ্যে ভিটামিন এ রয়েছে প্রচুর পরিমাণে। এটি আমাদের দেহের ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি আমাদের চোখের ভারতে পারে অনেক গুণ। এই পাতার গুনাগুন সম্পর্কে অনেক ধারণা রয়েছে। তাই যারা দুর্বল এবং চোখে কম দেখে তাদের জন্য সজনে পাতা খাওয়া উচিত

সুস্থ অসুস্থ সকল ক্ষেত্রেই আমাদের এই পাতাকে খাবারের অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।  আমাদের প্রত্যেকেরই বেশি করে শ্রদ্ধা পাতায় গাছ লাগানো উচিত।  আমাদের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার পাশাপাশি আমাদের পশ্চিম চাহিদা পূরণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।  তাই আমাদের বাড়ি আশেপাশের প্রতিটা জমিতে এই গাছ বেশি করে রোপন করা এখনই প্রয়োজন।

ডাবের পানির উপকারিতা

গর্ভবতী মায়ের  যত্ন

Views: 4

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *